how to check grammar bangla

কিভাবে আর্টিকেলের গ্রামার চেক করবেন? (৩ টি গ্রামার চেকার টুলস্‌)

লিখালিখির ক্ষেত্রে কাজ করতে গেলে আপাতদৃষ্টিতে মনে হয় আসলে কাজটা অনেক সহজ। কমার্শিয়াল লেখা হলে তো কথাই নেই।
কারণ,এতে একগাদা পণ্যের বর্ণনা দিতে হয়,তাদের কার্যপদ্ধতি বিশ্লেষণ করতে হয়।
হ্যাঁ,কথাগুলো সঠিক যদি সেগুলো বাংলায় লিখতে হয়। কিন্তু যখন ব্যাপারটা এমন হয় যে লেখা হবে ইংরেজিতে। তাও ফ্লুয়েন্ট ইংরেজি, তখন একটু ঘাবড়েই যেতে হয়।
কেন?

ব্যাকরণগত ভুল:

ইংরেজি ব্যাকরণ যতটা সহজ ঠিক ততটাই প্যাঁচানো। আর্টিকেল বলতে আমরা এ,এ্যান এবং দি (A,an,the) কে চিনি এবং বিষয়টা ছোটবেলা থেকেই পড়ে আসছি কিন্তু বিস্ময়কর খবর টা হচ্ছে দেশের ষাট ভাগ শিক্ষিত মানুষকে যদি পাঁচ লাইনের একটা প্যারা লিখতে দেয়া হয় তাতে অন্তত একটা আর্টিকেল ইরোর থাকেই। অথচ এটা অনেক ব্যাসিক একটা টপিক। তাহলে ভাবুন, হাইয়ার টপিক যেগুলো আছে সেগুলোতে কতখানি ভুল হবার সম্ভাবনা বিদ্যমান ?

বানান ভুল:

আচ্ছা আমরা যদি বাংলা শব্দভাণ্ডারের দিকে তাকাই তাহলে কি দেখতে পাই?
যত শব্দ আছে সেগুলো কি বানান অনুযায়ী মনে রাখা সম্ভব?
অবশ্যই না। এখন আমরা যদি আমাদের মাতৃভাষার শব্দভাণ্ডার মনে না রাখতে পারি তবে এটা কি কোনওভাবে সম্ভব যে ইংরেজি ভাষার শব্দভাণ্ডার মনে রাখবো?
হ্যাঁ,অসম্ভব। অর্থাৎ ইংরেজি লিখতে গেলে স্পেলিং মিস্টেক হবেই।

এছাড়াও পঠনযোগ্যতার ক্ষেত্রেও এক ধরনের ভুল পাওয়া যায় যার জন্য ইংরেজি লেখার কথা আসলেই এক ধরনের ভীতি কাজ করে।

এবার আসা যাক কিভাবে ইরোর চেক করা যায় এবং তা সংশোধন করা যায়।
ওয়েল,গ্রামাটিকাল ইরোর এবং স্পেলিং ইরোর ফাইন্ড আউট করার জন্য বেশকিছু সফটওয়্যার টুলস ও ওয়েবসাইট আছে
যেমন: গ্রামারলি,জিঞ্জার, হেমিংওয়ে,ল্যাঙ্গুয়েজ টুল ইত্যাদি।

চলুন আমাদের প্রথম টুলটি নিয়ে কিছু জানা যাক।

গ্রামারলি :

Grammarly

এটি ইরোর চেকারগুলোর মধ্যে সর্বাপেক্ষা বেশি ব্যবহৃত এবং সবচেয়ে বেশি কার্যকর ইউজার রিভিউ প্রাপ্ত।

প্রথমে গ্রামারলি ওয়েবে ঢোকার পর এ্যাকাউন্ট খুলতে হয় ইমেইল দিয়ে। এরপর ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে প্রসেসটি সমাপ্ত হয়। এখানে ফাঁকা বক্স সহ একটি ইন্টারফেস শো করে যেখানে লিখতে হয় অথবা লিখা পেস্ট করতে হয়। এতে গ্রামাটিকাল ইরোরগুলো চলে আসে এবং পরে তা কারেকশন করে নিতে হয়। এটা গ্রামারলি ইডিটর।

আবার গ্রামারলি এক ধরনের ফ্রি ব্রাউজার এক্সটেনশন দেয় যা ক্রোম,ফায়ারফক্স এর মত বহুল ব্যবহৃত ব্রাউজার গুলোতে এ্যাড করা যায় এতে ব্রাউজারের লেখাসমূহ গ্রামারলি দ্বারা পরীক্ষিত হয়।

উল্লেখ্য যে, উইন্ডোজ, এ্যাপল এবং এ্যান্ড্রয়েডের জন্যেও গ্রামারলি এ্যাপ্লিকেশন আছে যা অত্যন্ত উপকারি।

এখান থেকে গ্রামারলিতে সাইন আপ করুন!

এবার আসা যাক দ্বিতীয় টুলে।

জিঞ্জার :

ginger

গ্রামারলিএর মত জিঞ্জার ও অসংখ্য পজিটিভ রিভিউ প্রাপ্ত একটি টুল। গ্রামাটিকাল ইরোর এর পাশাপাশি স্পেলিং ইরোর ফাইন্ড আউট করতেও এটি সহায়ক। ব্রাউজার এ্যাডওন হিসেবে মূলত এটি কাজ করে।

জনপ্রিয় সব সামাজিক মাধ্যম ফেসবুক,টুইটার। যোগাযোগ মাধ্যম জিমেইল এমনকি ওয়ার্ডপ্রেস ইডিটরেও জিঞ্জার বেশ সহায়ক।

এক্ষেত্রে টাইপার বডির নিচের দিকে একটি আইকন শো করে জিঞ্জার। ইরোর থাকলে তা হাইলাইট করে ও তা কারেকশন করে নিতে হয় ম্যানুয়ালি।

এখান থেকে জিঞ্জার ডাউলনোড করুন।

এবার আসা যাক হেমিংওয়ের গল্পে।

হেমিংওয়ে:

hemmingway grammar checker

এই টুলটার নাম হেমিংওয়ে কেন হল তা নিয়ে একটা কনফিউশন থেকেই যায়। এটা নিশ্চয়ই আর্নেস্ট হেমিংওয়ে কিংবা বিখ্যাত সেই ওল্ড ম্যান এ্যান্ড দ্য সী উপন্যাস থেকে আসেনি। কিডিং !
কাজের কথায় আসি,

হেমিংওয়ে মূলত ওয়েব বেজড টেক্সট ইডিটর। এদের ওয়েবে কপি পেস্ট করার মাধ্যমে গ্রামার,স্পেলিং,রিড্যাবিলিটি স্কোর চেক করা যায়।

একটা স্পেশাল ব্যাপারও আছে !
তা হচ্ছে এতে স্টাইল চেক করা যায়। কোন স্টাইলে লেখা কোন প্যাটার্নে লেখা। লেখায় বাচনভঙ্গি কিরকম তা জানতে মূলত সাহায্য করে হেমিংওয়ে। মোটকথা ইরোর চেকার হিসেবে হেমিংওয়েও ইউজারদের থেকে বেশ প্রশংসা কামিয়েছে এর মধ্যেই।

তাছাড়া এটির একটি পেইড এ্যাপ আছে যা ম্যাক এবং উইন্ডোজ এ ইউজ করা যায়। নিঃসন্দেহে যা অনন্য পরিচয় বহন করে।

হেমিংওয়ে ব্যবহার করুন এখান থেকে।

Writers Motion থেকে আর্টিকেল অর্ডার করলে আপনাকে গ্রামার ইরোর নিয়ে চিন্তা করতে হবে না। প্রতিটা আর্টিকেল ডেলিভার করার আগে আমরা Grammarly দিয়ে সম্পূর্ণ চেক করে তবেই দেই। Writers Motion এ আর্টিকেল অর্ডার করতে এখানে ক্লিক করুন।