theme selection for affiliate site

কিভাবে আপনার সাইটের জন্য থিম সিলেক্ট করবেন?

ভালো থিম সিলেক্ট করা একটা এফিলিয়েট সাইটের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আপনার সাইটের সাফল্য অনেকখানি নির্ভর করে থিমের উপর। থিম যদি ভালো হয় তাহলে আপনার সাইটের স্পীড ভালো থাকবে, এফিলিয়েট মার্কেটিং এ কনভার্সন রেট ভালো পাবেন, ভিজিটররাও পছন্দ করবে আপনার সাইটকে। তারমানে এই না যে আপনাকে দামী প্রিমিয়াম থিম কিনতে হবে। অনেক ফ্রী থিম আছে যেগুলা বেশ ভালো।

আমি এই পোস্টে আপনার সাইটের জন্য থিম সিলেকশনের সময় কি কি ব্যাপারে লক্ষ্য রাখা উচিত সেই ব্যাপারে কিছু কথা বলবো। এছাড়াও পোস্টের শেষে আমার নিজের পছন্দের কয়েকটা ফ্রী থিম মেনশন করবো। আশা করি পোস্টটা আপনাদের ভালো লাগবে।

থিম সিলেকশনের সময় কি কি ব্যাপারে লক্ষ্য রাখা লাগবে?

  1. প্রথমে খেয়াল রাখতে হবে থিমটা যাতে একদম সিম্পল কিন্তু প্রফেশনাল লুকিং হয়। এফিলিয়েট মার্কেটিং এর জন্য সাইটের ডিজাইন একদম সিম্পল রাখা বেস্ট। আপনি যত জাঁকজমক ডিজাইন করবেন সাইটে, সাইট ততো স্লো হবার সম্ভাবনা থাকে। এছাড়াও এসব জাঁকজমক ডিজাইন বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই  এফিলিয়েট মার্কেটিং এর কনভার্সন রেট কমিয়ে দেয়। তাই থিম হতে হবে সিম্পল।
  2. ডিজাইন সিম্পল হলেও খেয়াল রাখতে হবে সেটা যেন প্রফেশনাল লুকিং হয়। বেশিরভাগ প্রফেশনাল সাইটই এমন থিম সিলেক্ট করে যেটায় হালকা কালার এর ব্র্যাকগ্রাউন্ডের উপর গাঢ় রঙের লেখা থাকে। এতে লেখাগুলো সহজে পড়া যায়। চোখের উপর প্রেশার পড়ে না কোনো। এছাড়াও এমন থিম সিলেক্ট করা ভালো যেটায় কোনো কটকটে কালারের ব্যবহার নেই, যেটা চোখে লাগে। আপনার মূল লক্ষ্য থাকা উচিত ভিজিটর যাতে আপনার সাইটে এসে আরাম করে আপনার কন্টেন্ট পড়তে পারে। অন্য কিছু ভিজিটরকে Distract করলে সেটা আপনার লস।
  3. সাইটের স্পিড অনেকখানি থিমের উপর ডিপেন্ড করে। থিমের কোডিং ভালো হলে সাইটের স্পীডের উপরেও সেটা ভালো প্রভাব ফেলবে। খেয়াল রাখবেন থিমটা যেন কোনো রেপুটেড কোম্পানির হয়ে থাকে। এছাড়াও রিভিউ চেক করে নিবেন। ওভারঅল সবার ভালো রিভিউ থাকলে ধরে নেওয়া যায় থিমটার কোডিং স্ট্রাকচার ভালো। এতে সাইটের স্পীডও ভালো থাকবে। এছাড়াও চাইলে বিভিন্ন টুলস দিয়ে চেক করে নেওয়া যায় সাইটের স্পীড কেমন। কোনো একটা থিম ইন্সটল করে আপনি চেক করতে পারেন সাইটের স্পীড কমেছে নাকি বেড়েছে। আমার পছন্দের স্পীড চেকার টুল হলো GTmetrix.
  4. একটা ভালো থিমের বৈশিষ্ট্য হলো, ভিজিটরকে আপনার কন্টেন্ট পড়তে কোনো কষ্ট করতে হয়না। সে সাইটে ঢুকলেই আপনার কন্টেন্ট প্রথমে চোখে পড়বে এবং আরাম করে কন্টেন্ট পড়া শুরু করবে। অনেক সাইটে দেখবেন, ঢুকলেই স্ক্রিন জুড়ে প্রথমে একটা বড় ছবি চোখে পড়ে। এধরনের ছবি কে বলে Hero Image. স্ক্রল করে নিচে গিয়ে কন্টেন্ট পড়তে হয়। এফিলিয়েট মার্কেটিং সাইটের জন্য এইধরনের ডিজাইন ভালোনা, এতে কনভার্সন রেট কমে যায়।
  5. খেয়াল রাখতে হবে থিমটা যেন রেস্পন্সিভ হয়। মানে মোবাইলে আপনার সাইট ভালোমতো দেখা যায় যেনো। বর্তমানে ওয়ার্ডপ্রেসের প্রায় সব থিমই রেস্পন্সিভ। আপনি নিজে থিম ডিজাইন করতে চাইলে রেস্পন্সিভনেসের দিকে খেয়াল রাখা লাগবে।
  6. একেক থিমের CSS Style একেকরকম। CSS হলো সোজা কথায় থিমের স্টাইল, লেখার ফন্ট, কালার, লেখার সাইজ এসব। খেয়াল রাখবেন থিমের ফন্ট যাতে স্ট্যান্ডার্ড কোনো ফন্ট হয়, লেখাগুলো যাতে খুব ছোট না হয় যে পড়তে অসুবিধা হয়। স্ট্যান্ডার্ড কোনো ফন্ট সাইজ, ফন্ট কালার থাকলেই হবে।
  7. থিমটা কাস্টমাইজেবল হলে ভালো। এতে আপনি নিজের মতো অনেক চেঞ্জ করতে পারবেন। তবে বেশিরভাগ ফ্রী থিমেই কাস্টমাইজ করার বেশি অপশন থাকেনা। কাস্টমাইজেশনের জন্য আপনাকে প্রিমিয়াম থিম ভালো।
  8. সবশেষে, থিম সিলেক্ট করার আগে দেখে নিবেন সেটার ইউজার রিভিউ কেমন, মানুষজন কি বলছে থিমটা নিয়ে। অভারওল ইউজার এক্সপেরিয়েন্স ভালো হলেই থিমটা সিলেক্ট করবেন।

আমার পছন্দের কিছু ফ্রী থিম মেনশন করছি। প্রত্যেকটা থিমই আমি আমার কোনো না কোনো সাইটে ব্যবহার করছিঃ

[sociallocker]

[/sociallocker]